• শুক্রবার, ২৪ মার্চ ২০২৩, ০৯:৩৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
কোন মায়ায় তুমি বেঁধেছো প্রেমিকেরে? মাহফুজ আলী কাদেরীর বিরুদ্ধে অপপ্রচারকারীদের গ্রেপ্তারের দাবীতে পাবনায় বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ইউনিয়নের মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত লৌহজংয়ে চার প্রতিষ্ঠানকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা   লৌহজংয়ে ভূমিহীন-গৃহহীন ৪৫ পরিবারের মাঝে জমি ও গৃহ হস্তান্তর মাধবপুরে পবিত্র রমজান উপলক্ষে অসহায়দের মাঝে ইফতার”খাদ্য সামগ্রী বিতরণ লৌহজংয়ে দশ ট্রাক চায়না দুয়ারি আটক দৌলতখানে উঃ জয়নগর ইউনিয়নে জেলেদের মাঝে চাল বিতরণ ফরিদগঞ্জে ৩১ পরিবার মুজিবর্ষের ঘর প্রদানের মধ্যে দিয়ে উপজেলা ভূমিহীন মুক্ত ঘোষণা ভোলা কাচিয়া সাহামাদার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের বিদায়ী ও দোয়া অনুষ্ঠিত লৌহজংয়ে ১৭ জেলে পরিবারের মাঝে বকনা বাছুর বিতরণ

এই লকডাউনে গরীব দূঃখী নিম্ন ও মধ্যবিত্ত মানুষের আর্তচিৎকার

দৈনিক আমাদের সংগ্রাম | পত্রিকা..... / ৮১ জন পড়েছে
প্রকাশিত সময়: বুধবার, ২১ এপ্রিল, ২০২১

এস এম আনিছুর রহমান, স্টাফ রিপোর্টারঃ

 

ঘরে খাবার নেই বাহিরে কাজ নেই অনাহারে গরিব-দুঃখী নিম্ন ও কে শুনে মধ্যবিত্ত মানুষের আত্মচিৎকার। গত লকডাউনের প্রভাব কেটে না উঠতেই আবারও ২২ দিনের লকডাউনের অন্ধকারে পুরো দেশ। দিশেহারা হয়ে পড়েছে মধ্যবিত্ত ও নিম্ন আয়ের মানুষ। ঘরে খাবার নেই, বাহিরে কাজ নেই, মানবেতর জীবনযাপন করছে অনেকেই যাঁরা দিনে আনে দিনেই খায়। করোনা ভাইরাস অতিমাত্রায় সংক্রামিত হওয়ার পর থেকে জনগণের জীবন বাঁচাতে পাল্লাক্রমে কঠোর লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিচ্ছে সরকার। এতে করে দেশে দুর্ভিক্ষ দেখা দেওয়ার সম্ভবনা বাড়ছে কি-না সেদিকে বর্তমান সরকার-কে খেয়াল রাখতে হবে বলে মনে করেন সচেতন মহল। দেশের বিশেষ একটি শ্রেনি ছাড়া, বাকি সবাই দূর্বিষহ জীবনযাপন করছে বলে মনে করেন সচেতন মহল। 

 

এখনি যদি এই মহামারী করোনা ভাইরাস-কে নিয়ন্ত্রণ না করা যায়, তাহলে একদিকে ভাইরাস সংক্রামিত হয়ে যত মানুষ মারা না যাবে, তার চেয়ে বেশি মানুষ মারা যাবে না খেতে পেয়ে। 

সবচেয়ে বেশি সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে মধ্যবিত্ত পরিবার গুলো, এরা না পারছে কারো কাছে বলতে, না পারছে নিজের পরিবারের জন্য কিছু করতে, এরা বুকে শত কষ্ট চেপে রেখে লকডাউন শিথিল হওয়ার আশায় রয়েছে।

 

নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে পড়ে গেছে আহাকার, না আছে ঘরে খাবার, না আছে বাহিরে কাজ, না পাচ্ছে কোনো সাহায্য কিভাবে সংসার চলবে তা নিয়ে রীতিমতো ঘুম হারাম হয়ে গেছে তাদের। 

কথায় আছে মরার উপর খড়ার ঘাঁ,লাগামহীন নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম বেড়েছে, যেমন চাল, ডাল, তেল,ডিম, মাছ, মাংস-সহ শাক সবজির।                   

সচেতন মহল মনে করেন, উপরোক্ত বিষয়গুলোর প্রতি সমাজর দায়িত্বশীল ও বিত্তশালীদের এগিয়ে আসা খুবই জরুরী, যে যেভাবে পারে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার আহবান জানান তারা। 

 

আল্লাহ তায়ালা বলেছেন, তোমার যা কিছু আছে, আমি তোমাদের দিয়েছি, আমি চাইলে মুহূর্তের মধ্যে সব কেঁড়ে নিতে পারি, তোমরা তোমাদের আশপাশের গরিব দুঃখী এতিম অসহায়দের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দাও। 

                       

আজ মনে পড়ে গেল সেই বিখ্যাত প্রবাদটি, মানুষ মানুষের জন্য, একটু সহানুভূতির হাত কি বাড়িয়ে দিতে পারে না।

আপনারা নিজ নিজ এলাকার হতদরিদ্র পরিবারের জন্য যত যতোটুকু পারেন ততোটুকুই সাহায্য করার চেষ্টা করেন, হয়তো আপনার সহযোগিতার জন্য একটি পরিবারের একবেলার খাবার হবে।

 

লেখক:

———————————-

সাংবাদিক

এস এম আনিছুর রহমান


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
❌ নিউজ কপি করা নিষিদ্ধ ❌